Posts

Featured Post

কেন ফ্রি কলিং এপগুলো ব্যবহার করবে না | Free Calling App Review

Image
বর্তমানের এই ইন্টারনেটের যুগে যোগাযোগ ব্যবস্থা খুব বেশি সহজ হয়ে গেছে। আমরা মুহূর্তেই একে অপরের সাথে কথা বলতে পারি মেসেঞ্জারেে চ্যাটের মাধ্যমে। আবার মনের চাহিদা পূরণ করতে অনেক অডিও কল ও ভিডিও কল ব্যবহার করে থাকে।

কিন্তু আমাদের দেশে প্রত্যেকের কাছে এখনও ইন্টারনেট পৌঁছেনি বা অনেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেননা। তাই তাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য আমাদের একমাত্র মাধ্যম হলো "সিম টু সিম" কল করা। যা খুবই ব্যয়বহুল বিশেষ করে যখন গ্রামীণফোন - বাংলালিংক এবং  বাংলালিংক - গ্রামীণফোন  কল করা হয় তখন যেন টাকা হাওয়া হয়ে যায়। তবে আমরা বাঙালি বলে কথা তাই এটার সমাধানও রয়েছে।

আমরা এমন কিছু এপ আবিষ্কার করেছি যেগুলো ফ্রিতে আনলিমিটেড কল করা যায় যেকোন নাম্বারে। দারুন ব্যাপার তাই না? ফ্রি জিনিস কার না পছন্দ?

এই এপগুলো হয়তো তোমরা অনেকেই ব্যবহার করো আবার অনেকেই জানোনা। যা হোক, যদি জেনে থাকো ও ব্যবহার করো তাহলে অনেক বড় ভুল করছো। আর যারা জানোনা তাদেরকে CONGRATULATION তোমরা নিরাপদে আছো। কারণটি বিস্তারিত আকারে বলছি।

প্রথমেই বলি এই এপগুলো কি এবং কিভাবে কাজ করে। কারণবশতই আমি এই এপগুলোর নাম পোস্টে উল্লেখ করছিন…

ফেসবুকের কারণে যেভাবে ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়েছিল

Image
এখনকার সময়ের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হলো ইরান-আমেরিকা যুদ্ধ। আর এই যুদ্ধের একটি মূখ্য ভূমিকা পালন করছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে কতোটা যোগ্য তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে অনেকের মাঝেই। তিনি কিভাবে প্রেসিডেন্ট হিসেবে অধিক ভোট পেয়েছিলেন তা নিয়ে গুজব রটেছিল অনেক। কেউ দাবি করেছিল চিটিং, আবার কেউ দাবি করেছিল রাশিয়ান হ্যাকার। তবে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পেছনের মূল কারণ প্রকাশ পেয়ে কলঙ্কিত হয় ফেসবুক। সেটি নিয়েই আজকে লিখছি।

অনেকের মনেই প্রশ্ন উঠবে- "ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়েছে ২বছর আগে, এখন এটি নিয়ে পোস্টের কি আছে?"

আসলে এই ২বছর পরেও ট্রাম্পের ও ফেসবুকের কলঙ্কারির তথ্যটি কোথাও বিস্তারিত আকারে নেই। কেউ কোথাও প্রযুক্তিগতভাবে বলেনি আসলে কিভাবে ফেসবুক ব্যবহার করে ট্রাম্প জিতেছিল। তাই আমি এই বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিতভাবে লিখছি প্রতিটি ধাপ যা ব্যবহার করে ট্রাম্প জিততে পেরেছিল। 

সংক্ষিপ্ত ঘটনাঃ
আমেরিকার নির্বাচনে জেতার জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং হেলারি ক্লিন্টন নানা মাধ্যমে প্রমোশন (বিজ্ঞাপন) দেন। তারা অনলাইনেও এড বা বিজ্ঞাপন দেন। তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ফেসবুককে প্রধান বিজ্ঞাপন মাধ্যম হিসেবে ন…

হাতের ইশারায় লেখা যাবে অদৃশ্য কিবোর্ডে (ভিডিও)

Image
কেমন হতো যদি বাড়তি কোন কিবোর্ড ব্যবহার না করেই শুধু অদৃশ্য কিবোর্ড ব্যবহার করেই হাতের ইশারায় লেখা যেতো ফোন, ল্যাপটপ এমনকি কম্পিউটারেও?

এই ধরনের প্রযুক্তির কথা  পূর্বেও শোনা গেলেও তা সম্পূর্ণ হতে পারেনি।

তবে হ্যাঁ, এবার এমনটিই করে দেখিয়েছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। তারা এমন একটি প্রযুক্তি তৈরি করেছে যেটি ব্যবহার করে হাতের ইশারায় লেখা টাইপ করা যাবে।

তাদের এই প্রযুক্তিটির নাম "সেলফিটাইপ" (SelfieType)। এই প্রযুক্তি মূলত এআই (AI) নির্ভর। যেমনটি নাম দেখে বুঝা যাচ্ছে, এটিতে ফোনের সেলফি ক্যামেরা বা ফ্রন্ট ক্যামেরার ব্যবহার হবে। মূলত ফ্রন্ট ক্যামেরায় এমন এআই ব্যবহার করা হবে যেটি হাতের অবস্থান বুঝতে সক্ষম হবে। আর সেই ডাটাকে কাজে লাগিয়েই লেখা ভেসে উঠবে ফোনের স্ক্রিনে।

২০২০সালের সিইএস এ স্যামসাং ভবিষ্যতের প্রযুক্তি হিসেবে এটির প্রদর্শন করে।

কফি পানের জন্য সঙ্গী মিলবে দেশি অ্যাপে

Image
চা বা কফি আমরা সবাই পান করে থাকি। কিন্তু সেই কফির মজা আরও বেড়ে যায় যখন কফির পানের সাথে সাথে আড্ডা দেয়া যায়। কিন্তু সিঙ্গেল ব্যক্তিদের জন্য এটি খুব কষ্টের। আর সবসময় বন্ধুকেও পাওয়া যায়না।

তাই নতুন বন্ধু বা সঙ্গী পেতে নতুন অ্যাপ তৈরি করেছে দেশি অ্যাপ ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান এমসিসি লিমিটেড। তাদের তৈরি এই অ্যাপটির নাম "কফি আড্ডা"।
জানা গেছে ২১ হাজার ব্যবহারকারী ইতিমধ্যে পছন্দসই সঙ্গী এ প্ল্যাটফর্মে খুঁজে পেয়েছেন। এটি মূলত পরস্পরের পছন্দসই বিষয়গুলোর মিল খুঁজে বন্ধু খুঁজে পাওয়ার অ্যাপ্লিকেশন। কফি আড্ডা ব্যবহার করে একই রকম আগ্রহ, লোকেশনভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারের অভিজ্ঞতা পাওয়া যায়। এখানে ব্যবহারকারীরা নিজ নিজ অবস্থান এবং পছন্দের বিষয় উল্লেখ করে প্রোফাইল খোলার মাধ্যমে বন্ধু খুঁজে নিতে পারেন। কফি আড্ডা ব্যবহারকারী নিজ অবস্থানের আশপাশে অবস্থানরত অন্য কফি আড্ডা ব্যবহারকারীদের খুঁজে পাবেন। পছন্দের সাদৃশ্যের ভিত্তিতে বন্ধু তালিকা দেখানোয় পারস্পরিক ম্যাচের সম্ভাবনা থাকে বেশি। এতে ব্যবহার করা হয়েছে বিশেষ অ্যালগোরিদম যা বয়স, এলাকা, পছন্দ ও লিঙ্গভিত্তিক অনেক মানুষের প্রোফাইলের মিল বের…

আয়ের হিসেবে বিশ্বের সেরা দশ ইউটিউবার ২০১৯

Image
বর্তমানে ইউটিউব একটি আয়ের উৎস হিসেবে দাঁড়িয়েছে। ইউটিউবে কন্টেন্ট নির্মাণ করে অনেকে আয় করছে কোটি কোটি ডলার যেগুলো বাংলাদেশি টাকায় কোটি-কোটি কোটি টাকা। আর এবছর তাই বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস প্রকাশ করেছে আয়ের দিক দিয়ে সেরা ইউটিউবারদের তালিকা। বিজ্ঞাপন, পৃষ্ঠপোষকতা, নিজ নামে পণ্যসামগ্রী বিক্রি এবং ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে অন্যান্য উৎস থেকে আয়ের কর কর্তনের আগের আনুমানিক হিসাব করে এই তালিকা প্রকাশ করেছে মার্কিন সাময়িকীটি। এ বছর শীর্ষ ১০ ইউটিউবারের মোট আয় ১৬ কোটি ২০ লাখ ডলার।


 মা-বাবা ও যমজ বোনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে থাকে রায়ান। ইউটিউব চ্যানেলের ২ কোটি ৩০ লাখ সাবস্ক্রাইবারের জন্য প্রায় প্রতিদিন নতুন ভিডিও প্রকাশ করে সে। তার ভিডিওগুলোর ভিউয়ের সংখ্যা মিলিয়ন এবং কিছু ভিডিওর বেলায় বিলিয়ন ছাড়িয়েছে। মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান পিউ রিসার্চ সেন্টারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউটিউব ভিডিওতে শিশু থাকলে গড়ে অন্যান্য ভিডিওর তুলনায় তিন গুণ বেশি মানুষ দেখে থাকে। তবে রায়ানের ভাষায়, মানুষ তার ভিডিও দেখে, কারণ, সে মজার।


 দেখে নিন আয়ের হিসেবে শীর্ষ ১০ ইউটিউবারের তালিকাটি:


১। রায়ান কাজি - ২ কোটি ৬০ লাখ ডলা…

২০১৯ সালের সেরা পাঁচ ফোন

Image
২০১৯ সালে আমরা ফোনের বাজারে অসাধারণ কিছু ফোন দেখেছি। ফোনগুলোর ফিচার আমাকে খুবই আকর্ষিত করেছে। অনেক ফোনের দাম খুবই বেশি। এই ফোনের কিছু ব্যাটারির জন্য ভালো, আবার কিছু ক্যামেরার জন্য ভালো। কিন্তু নিচে সবকিছু মিলিয়ে ভালো ও সেরা ফোনের তালিকা দেয়া হলো। কেউ যদি কিন্তে চাও তাহলে এগুলো থেকে একটি ফোন নিয়ে নিতে পারো।

-- স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট১০+ -- সুবিধাঃ

ব্যাটারি খুব শক্তিশালীনচ খুবই ছোটএস পেন স্টাইলাস রয়েছেঅসুবিধাঃ

হ্যাডফোন জ্যাক নেইদাম অনেক বেশিআকারে বড় হওয়ায় হাতে নিতে সমস্যা হয় অনেকেরদামঃ ১৩৪,৫০০টাকা
-- ওয়ানপ্লাস ৭প্রো --
সুবিধাঃ এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ফাস্ট এন্ড্রয়েড ফোনকোন নচ নেইএটির ওএস খুবই স্মুথঅসুবিধাঃ কোন হ্যাডফোন জ্যাক নেইদামঃ ৬৮,৯৯০ টাকা
-- গুগল পিক্সেল ৪ --
সুবিধাঃ সেরা ক্যামেরানচবিহীন সুন্দর ডিজাইন৯০হারটজ এর ডিসপ্লেঅসুবিধাঃ
ব্যাটারি তেমন ভালো নয়দামঃ ৭৬,৫০০ টাকা
-- অ্যাপেল আইফোন ১১প্রো --

সুবিধাঃ ডুয়েল সিমব্যাটারি লাইফ ভালোঅসুবিধাঃ অনেক দামীদামঃ ৯৮,০০০ টাকা
-- আসুস রগ ফোন ।। --
সুবিধাঃ ৮/১২জিবি র‍্যামএমোলেড ডিসপ্লেগেমিং এর সেরা ফোনঅসুবিধাঃ মেমোরি কার্ড স্লট নেইদামঃ ১০৮,৫০০ টাকা

ফেসবুকের দুষ্টু সেবা ডেটিং

Image
নিজের সাথে মিলিয়ে পছন্দের মানুষের সাথে চ্যাটিং, ডেটিং করার জন্য এখন থেকে ফেসবুকে খোলা যাবে ডেটিং প্রোফাইল। বৃহস্পতিবারে যুক্তরাষ্ট্রে এটি প্রথম উদ্বোধন করলো ফেসবুক। এতে ডেটিং প্রোফাইল তৈরির সময় ব্যক্তির পছন্দ অপছন্দকেই প্রাধান্য দেয়া হবে। একইসাথে এতে ফেসবুক ও ইন্টাগ্রামের স্টোরিজও দেখা যাবে।
তারা জানায়, কথপোকথনের মাধ্যমে পরস্পরের প্রতি আগ্রহ হলে তারা মেসেজের মাধ্যমে ডেটিং এর তারিখ ও স্থান নির্ধারণ করতে পারবেন।
২০১৮ সালের মে মাসে ফেসবুকের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন এফ–৮ আয়োজনে ডেটিং সেবার ঘোষণা দিয়েছিল ফেসবুক। এবার তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নেমেছে প্রতিষ্ঠানটি।